Saturday, September 23, 2017

রাজধানীতে ১১ জনে একজন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত

রাজধানীজুড়ে চিকুনগুনিয়া বিস্তারের শঙ্কা আট মাস আগেই জানিয়েছিলো রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা ইনস্টিটিউট--আইইডিসিআর। এরপর থেকেই তা প্রতিরোধে কাজ শুরুর তাগিদও দেয় প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন বলছে, দায়িত্বশীল কোনো দপ্তর থেকে তাদের কিছুই জানানো হয়নি। এই জানা না জানার ফল, গেলো ছয় মাসে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত রাজধানীর প্রতি ১১জনের একজন। দুই সিটি করপোরেশনই স্বীকার করেছে, সচেতনতা তৈরিতে তাদের দুর্বলতা ছিলো।

রাজধানীতে এবছর এডিস মশাবাহিত চিকুনগুনিয়া ভাইরাসের বিস্তার, ভেঙ্গে দিয়েছে আগের সব রেকর্ড। আইইডিসিআর এর সাম্প্রতিক জরিপ বলছে, রাজধানীতে প্রতি এগারোজন নাগরিকের একজন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আর সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ (সিডিসি) কর্মসূচী চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত হিসেবে রাজধানীর ৩৫টি এলাকাকে চিহ্নিত করেছে। দুই সিটি করপোরেশনে জরিপ চালিয়ে তারা ৭৫১টির মধ্যে ২৮০টি বাসাতেই চিকুনগুনিয়া ভাইরাসের অস্তিত্ব পেয়েছে।

অথচ এই জ্বরের প্রকোপ এবছর বাড়তে পারে বলে ২০১৬ সালেই আভাস দিয়েছিল আইইডিসিআর। এ দাবির সত্যতা মেলে তাদের ওয়েবসাইটেও। অথচ উত্তর সিটি করপোরেশন বলছে, এ বিষয়ে তারা কিছুই জানতো না।

চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে দায়িত্বশীলদের এমন দায়সারা কথাবার্তায় আর যাই হোক চরম আতংকে দিনি কাটছে রাজধানীবাসীর। তবে দুই সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা স্বীকার করছেন সচেতনতা তৈরিতে নিজেদের দুর্বলতার বিষয়টি।

চিকিৎসকের মতে, মানব শরীরে প্রতিরোধ ব্যবস্থা না থাকা এবং নতুনত্ব দুই কারণে বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে ভাইরাস ছড়াতে পারে।

এখন চিকনগুনিয়ার প্রকোপ কিছুটা কমলেও পুরো বর্ষা মৌসুম জুড়েই এই রোগের আশংকা থাকছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর।

Last modified on 12-07-2017 05:06:08 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save