Has no item to show!
728x90

যেভাবে গ্রেফতার হন নাঈম আশরাফ

পরিচিত একজনের সূত্রে, মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে আত্মগোপনে ছিলেন, বনানীতে ধর্ষণ মামলার আলোচিত আসামি আবদুল হালিম ওরফে নাঈম আশরাফ। চারদিন ধরে ওই বাড়িতে লুকিয়ে ছিলেন তিনি। বুধবার সেখান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ বলছে, একটি আলোচিত মামলার আসামির এভাবে আত্মগোপনে থাকা, তাদের জন্য একটি বড় শিক্ষা। যা কাজে লাগবে ভবিষ্যতে।

রেইনট্রি হোটেলে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় যে ৫ জনকে আসামি করা হয়, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় ছিলো, নাঈম আশরাফের নাম। সাংবাদিকদের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে, সিরাজগঞ্জের কাজীপুরের এক ফেরিওয়ালার ছেলে আব্দুল হালিম, ২০০৪ এ রাজধানীতে এসে হয়ে যায় নাঈম আশরাফ। ৬ মে মামলার পর একে একে বাকি ৫জন ধরা পড়লেও, এই ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ব্যবসায়ী ছিলেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। এ নিয়ে বিস্তর সমালোচনাও ছিলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থানার হলুদিয়া ইউনিয়নের মৌছাগ্রামে আকুব আলীর বাড়ি। চারদিন আগে এখানে এসে আত্মগোপন করেন নাঈম আশরাফ ওরফে আব্দুল হালিম। বাড়ির মালিকের সাথে কোনো আত্মীয়তা না থাকলেও, আকুব আলীর মেয়ে জামাইয়ের সূত্র ধরে আশ্রয় নেন নাঈম।

বুধবার এই বাড়ি থেকেই নাঈমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সংবাদ শোনার পর নাঈমের  কঠোর শাস্তি দাবি জানিয়েছেন স্থানীরা।

পুলিশ বলছে, এরকম চাঞ্চল্যকর একটি মামলার আসামির এভাবে আত্মগোপনে থাকার ঘটনা থেকে তারা ভবিষ্যতে শিক্ষা নেবেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২৮ মার্চ রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন দুই শিক্ষার্থী।

Last modified on 18-05-2017 07:34:42 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: info@channel24bd.tv
Newsroom: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save