Wednesday, November 22, 2017

ঢাবি'র উপাচার্য নিয়োগে আদালতের রায় ও বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের লঙ্ঘনের অভিযোগ

রাষ্ট্রপতির নির্বাহী আদেশে সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮ তম উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান অধ্যাপক আখতারুজ্জামান।

তবে যে প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তাকে এ পদে বসানো হয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বলা হচ্ছে, এই নিয়োগের ফলে বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের লঙ্ঘন হয়েছে, সেইসাথে অমান্য করা হয়েছে আদালতের নির্দেশও। তবে বিতর্ক যাই হোক, নতুন উপাচার্যের প্রতিশ্রুতি, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম রক্ষায় সবাইকে নিয়েই কাজ করবেন তিনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে অর্ধেকেরও কম সদস্য নিয়ে গেলো ২৯ জুলাই নির্বাচন করা হয়, উপাচার্য প্যানেল। যা নিয়ে তৈরি বিতর্ক। 

এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আদালতে রিট করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট ও শিক্ষক। এতে ৩ অক্টোবর শুনানির দিন ঠিক করেন উচ্চ অদালত। একইসাথে বলা হয়, আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করবেন আরেফিন সিদ্দিক। কিন্তু ঈদের ছুটিতে গেলো ৪ আগস্ট হঠাৎই প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামানকে উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি।   

এতে পুরো বিষয়টি আরও জটিল আকার ধারণ করে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার বিরোধিতায় তাৎক্ষণিক পদত্যাগের ঘোষণা দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ বেশ কয়েকটি হলের প্রাধ্যক্ষ্য। যদিও পরে সরে আসেন এ সিদ্ধান্ত থেকে। তাদের দাবি, এর ফলে সুস্পষ্ট লঙ্ঘন হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ ১৯৭৩ এর। একইসাথে এটি আদালত অবমাননাও। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবীণ এই শিক্ষক মনে করেন, আইনের সাথে সাংঘর্ষিক হলেও সরকারের হাতে কোনো বিকল্প ছিলো না। বিভেদ ভুলে ঐক্যের ডাক দিয়ে নব নিযুক্ত উপাচার্য জানালেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখতে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। নিয়োগ বিতর্ক নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে না চাইলেও নতুন উপাচার্যকে সব ধরনের সহযোগিতা করার কথা জানিয়েছেন সাবেক ভিসি আরেফিন সিদ্দিক।

 

Last modified on 12-09-2017 12:55:48 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save