Friday, December 15, 2017

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী স্বীকৃতি দেয়ায় ক্ষোভে উত্তাল ফিলিস্তিন

নানা সতর্কতা উপেক্ষা করে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় বিশ্বজুড়ে চলছে ট্রাম্পের সমালোচনা। বিশ্ব নেতারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র যে পক্ষপাতদুষ্ট, তা আবারো প্রমাণ হলো। এ ঘটনায় ক্ষোভে উত্তাল পুরো ফিলিস্তিন। গাজায় ৮ ডিসেম্বর বিক্ষোভ কর্মসূচী দিয়েছে হামাস। তুরস্ক, জর্ডান, সিরিয়া, যুক্তরাষ্ট্রেও চলছে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ। এ বিষয়ে শুক্রবার জরুরি বৈঠকে বসতে পারে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ।

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সম্পর্ক বরাবরই স্পর্শকাতর জেরুজালেম ইস্যুতে। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এক তরফা সিদ্ধান্তে ওলট-পালট হয়ে গেলো সব অঙ্ক। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতিতে ক্ষোভে উত্তাল পুরো ফিলিস্তিন। আজ থেকে টানা ৩ দিন চলবে বিক্ষোভ। গাজায় ৮ ডিসেম্বর বিক্ষোভ কর্মসূচী দিয়েছে হামাস। তুরস্ক, জর্ডান, সিরিয়া, যুক্তরাষ্ট্রেও চলছে ফিলিস্তিনীদের বিক্ষোভ।

ট্রাম্পের ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ফিলিস্তিন প্রশাসন বলছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি স্থাপনে তার বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে। তার একক সিদ্ধান্ত কখনই জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী করতে পারবে না।

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বলেন 'জেরুজালেম ফিলিস্তিনের চিরস্থায়ী রাজধানী। ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত এই পরিচয়কে পরিবর্তন করতে পারবে না বা ইসরায়েলকে কোনো বৈধতাও দেয়না। এটি কেবল মধ্যপ্রাচ্যকে অনন্তকালের ধর্মীয় সংঘাতের দিকে ঠেলে দেবে।'

শান্তি আলোচনায় ফিলিস্তিনের মধ্যস্থতাকারী সায়েব ইরেকাত বলেন, 'ট্রাম্প আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছেন। ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতকে রাজনৈতিক থেকে ধর্মীয় দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। শান্তি আলোচনায় ভূমিকা রাখার যোগ্যতা হারিয়েছেন তিনি।'

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এই পরিস্থিতিকে 'মারাত্মক উদ্বেগজনক' আখ্যা দিয়ে বলেছেন, এখানে দুই জাতি তত্ত্বের বিকল্প কিছু নেই। সৌদি বাদশাহ সালমানের মতে, এটি উস্কানিমূলক সিদ্ধান্ত। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে কোনো সমর্থন দেবে না বলে সাফ জানিয়েছে জার্মানি। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জেরুজালেমকে স্বীকৃতি দেয়ায় ট্রাম্পকে তিরস্কার করেন। ট্রাম্পের ভাষায় যা 'এখনই সময় জেরুজালেমকে স্বীকৃতি দেয়ার', তা অনুশোচনার যোগ্য বলে মনে করেন বিশ্বনেতারা।

ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো বলেন, 'সমঝোতার ভিত্তিতে জেরুজালেমের ভাগ্য ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলই নির্ধারণ করবে। ফ্রান্স ও ইউরোপ তাদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবে।' 

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে যুক্তরাজ্য, মিশর, ফ্রান্সসহ ৮টি সদস্য রাষ্ট্রের ডাকে আগামী শুক্রবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক হতে পারে। শনিবার বৈঠকে বসতে পারে আরব লীগ।

Last modified on 07-12-2017 01:07:41 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save