Thursday, November 23, 2017

২৫ হাজার কোটি ডলারের চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্র-চীন

ট্রাম্পের বেইজিং সফরে নতুন মাত্রা পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র-চীন সম্পর্ক। দুদেশের মধ্যে চুক্তি হয়েছে ২৫ হাজার কোটি ডলারের। মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রেই তৈরি হবে ১২ হাজার কর্মসংস্থান। তাই যেকোনো সময়ের চেয়ে বর্তমান মার্কিন প্রশাসনকে বন্ধুত্বপূর্ণ বলছেন চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিনপিং।

 

বিশ্বরাজনীতির দুই পরাশক্তি। নির্বাচনি প্রচারে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য ঘাটতি নিয়ে সরাসরি চীনকে দুষেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। নির্বাচনের একবছরের মাথায় বেইজিং সফরে সেই ট্রাম্পের কণ্ঠেই ভিন্ন সুর। চীনের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের যে বাণিজ্য ঘাটতি তৈরি হয়েছে, তার জন্য চীন দায়ী নয়। দায়ী ওবামা প্রশাসনের অব্যবস্থাপনা। চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মজবুত সম্পর্ক দুদেশে শান্তি আর সমৃদ্ধি আনবে। 

ট্রাম্প দম্পতিকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানায় চীন। গণমাধ্যম বলছে, এর আগে দেশটিতে এমন জাঁকজমকপূর্ণ অভ্যর্থনা পাননি কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট। পুরানো মার্কিন নীতি থেকে সরে আসছে, চীনও। রক্ষণশীল দেশটিতে যেখানে টুইটার, ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ; সেখানে চীনে বসেই বিশেষ ব্যবস্থায় টুইটার ব্যবহার করছেন ট্রাম্প। 

চীন সফরে ওয়াশিংটন-বেইজিংয়ের মধ্যে তেল-গ্যাস ও পরিবহন খাতে সব মিলিয়ে ২৫ হাজার কোটি ডলারের বাণিজ্য চুক্ত সই হয়। অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে, যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রশাসনকে বন্ধুত্বপূর্ণ বলছেন চীনের প্রেসিডেন্ট। ৪৫ বছর আগে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনের চীন সফরে দুদেশের সম্পর্কের সূচনা। তারপর দুদেশের কয়েক প্রজন্মের নেতৃত্বের সম্মিলিত চেষ্টায় ওয়াশিংটন-বেইজিং সর্ম্পক নতুন মাত্রা লাভ করেছে। এ সর্ম্পক বিশ্বকে সামনে এগিয়ে নেবে। জ্বালানিসহ অন্যান্য খাতে বেইজিংয়ের সঙ্গে বাণিজ্য সহায়তা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা আর ইয়োমিং রাজ্য সরকার। 

চীনের সাথে আমাদের দেশের পুরানো বাণিজ্যিক সম্পর্ক রয়েছে। সে সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় এসেছে। সি ফুড থেকে শুরু করে জ্বালানি খাতে চীনের সাথে বাণিজ্য শুরু করতে পারি আমরা। গেলো এপ্রিলে চীনা প্রেসিডেন্টের যুক্তরাষ্ট্র সফরের পর থেকেই দুদেশের সম্পর্কের বরফ গলতে শুরু করে। বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনতে একশোদিনের কর্মপরিকল্পনাও নেয় দুদেশ। কর্মকর্তারা বলছেন, ওয়াশিংটন-বেইজিংয়ের বাণিজ্য চুক্তির ফলে, যুক্তরাষ্ট্রে ১২ হাজার নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। 

 

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save