মাছ চাষে সোনালী ভবিষ্যতের হাতছানি | বিশেষ সংবাদ

CHANNEL 24



Back প্রচ্ছদ বিশেষ সংবাদ মাছ চাষে সোনালী ভবিষ্যতের হাতছানি

মাছ চাষে সোনালী ভবিষ্যতের হাতছানি

  images/news/12-1-2017/fish.jpg

এক সময় শুধু প্রকৃতির উপর নির্ভর করেই মাছ চাষ হতো দেশে। তবে, সময় বদলেছে এ খাতে লেগেছে আধুনিকতার ছোয়া। বর্তমানে দেড় কোটির বেশি মানুষ জড়িত মাছ চাষের সাথে। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার হিসেবে মাছ উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ বাংলাদেশ।

এক দশকে উৎপাদন বেড়েছে ৫৩ শতাংশ। আর রপ্তানী বেড়েছে ১৫৩ শতাংশ। মাছ চাষ স্বপ্ন দেখাচ্ছে দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে।

মাছের জন্য পুকুরে খাবার ছিটিয়ে প্রতিদিনের সকালটা শুরু হয় মোজ্জামেল হাওলাদারের। কেন না পুকুরে মাছ চাষই তাকে করে তুলেছে সাবলম্বী। ৫ বছর আগেও বরিশালের বাবুগঞ্জের এই বাসিন্দা জীবিকার জন্য খেটেছেন অন্যের জমিতে। যাতে জুটতো না দু'বেলা খাবারও।

পরে প্রতিবেশিদের দেখে আগ্রহী হন পুকুরে মাছ চাষে। নিজের পুকুর থাকায় সহজেই ঘুরে যায় ভাগ্যের চাকা। এখন তিনি পুরোদস্তুর মাছ চাষী।

মাছচাষ করে মোজ্জামেলের মত রওশান আরা শুধু স্বাবলম্বীই হননি; মিলেছে কাজের স্বীকৃতিও। ২০১৬ সালে মৎস্য সপ্তাহের সেরা চাষি তিনি। অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এখন উৎসাহ যোগাচ্ছেন অন্যদের।

পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাবে, এক দশকে দেশে মাছের উপাদন বেড়েছে ৫৩ শতাংশের বেশি। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে ছিলো ৩৪ লাখ ৫৫ হাজার টন; এখন তা ৩৬ লাখ টন ছাড়িয়ে। বাংলার ভেনিস খ্যাত বরিশালেই এ বছর মাছের উৎপাদন বেড়েছে প্রায় ৩০ হাজার মেট্রিকটন। যা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানী করা হচ্ছে বিদেশেও।

আন্তর্জাতিক মৎস্য গবেষণা সংস্থা ওয়ার্ল্ডফিশের মতে, দেশজুড়েই জীবিকা নির্বাহের নির্ভরযোগ্য খাত হয়ে উঠছে মাছ চাষ।

downloadLink; ?>