বাংলাদেশে সম্প্রচারে থাকতে আইনি লড়াইয়ে নেমেছে ভারতীয় ৩টি চ্যানেল | নিউজ 24

CHANNEL 24



Back প্রচ্ছদ নিউজ 24 বাংলাদেশে সম্প্রচারে থাকতে আইনি লড়াইয়ে নেমেছে ভারতীয় ৩টি চ্যানেল

বাংলাদেশে সম্প্রচারে থাকতে আইনি লড়াইয়ে নেমেছে ভারতীয় ৩টি চ্যানেল

বাংলাদেশে সম্প্রচারে থাকতে আইনি লড়াইয়ে নেমেছে ভারতীয় টিভি চ্যানেল স্টার জলসা, স্টার প্লাস ও জি বাংলা। দেশে এসব চ্যানেল সম্প্রচারের বৈধতা প্রশ্নে যে রিট হয়েছিলো তারই চূড়ান্ত শুনানিতে আইনজীবী নিয়োগ দেয় এই তিনটি চ্যানেল।

যার চূড়ান্ত শুনানিতে তারা বলেন, নিয়ম মেনেই এদেশে সম্প্রচারে আছেন তারা। যার স্বপক্ষে আদালতে দাখিল করা হয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, বিটিভি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের তিনটি নথি। যেগুলোও সাফাই দিচ্ছে, এদেশে সম্প্রচারে কোনো নিয়ম ভাঙ্গেনি ওই তিন চ্যানেল।

কূটনামি, পরকীয়া কিংবা পারিবারিক কলহ..ভারতীয় ধারাবাহিক নাটকের গল্পের মূল উপজীব্য। ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে যার নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা অনেক দিনের।

সম্প্রতি দেশে এসব সিরিয়াল দেখা নিয়ে আত্মহত্যা, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া, এমনকী খুনোখুনির ঘটনাও খবর হয়েছে গণমাধ্যমে। এ অবস্থায় দাবি ওঠে বাংলাদেশে ভারতীয় চ্যানেলের প্রচার বন্ধের, যা গড়ায় উচ্চ আদালত পর্যন্ত। ২০১৪ সালে স্টার জলসা, স্টার প্লাস ও জি বাংলার প্রচার বন্ধে হাইকোর্টে রিট করেন, শাহীন আরা লাইলি নামের এক আইনজীবী। যার চূড়ান্ত শুনানি শুরু হয় গত ৮-ই জানুয়ারি। যেখানে রিটকারীর আইনজীবী, নানা তথ্য-উপাত্ত ও যুক্তি তুলে ধরে বলেন, ভারতীয় সিরিয়ালের কারণে ঘটছে সামাজিক অবক্ষয়।
 
তবে এতো সহজেই বাংলাদেশের বাজার ছাড়তে রাজি নয়, স্টার জলসা, স্টার প্লাস ও জি বাংলা। নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে, নেমেছে আইনি লড়াইয়ে। তাদের যুক্তি বৈধভাবেই সম্প্রচারিত হচ্ছে, এ তিনটি টিভি চ্যানেল। যার স্বপক্ষে আদালতে দাখিল করা হয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, বিটিভি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কয়েকটি নথি। যদিও এ সময় আদালতের নজরে আনা হয়, বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার ফির বৈষম্যর বিষয়টিও। বাংলাদেশে প্রচারের জন্য ভারতীয় চ্যানেলকে যেখানে বছরে ফি দিতে হয় মাত্র তিন লাখ টাকা, সেখানে ভারতে প্রচারের জন্য বাংলাদেশি চ্যানেলকে গুনতে হয় ৫ কোটি টাকা।

তবে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মনে করেন, বিদেশি চ্যানেলে কী ধরনের অনুষ্ঠান সম্প্রচার হচ্ছে, তা নজরদারিতে মনিটরিং সেল গঠন করা উচিৎ।