পাহাড় যেন মৃত্যুপুরী

গত বছর ১৩ জুন পাহাড় ধসে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবান, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি ও মৌলভীবাজারে মৃত্যু হয় ১৬৮ জনের। 

এর মধ্যে শুধু রাঙামাটিতেই মারা যান ১২০ জন। সেই ক্ষত এখনও বয়ে বেড়াচ্ছেন অনেকে। নিরাপদ স্থানে পুনর্বাসন না হওয়ায় বসতি গড়েছেন সেই মৃত্যুপুরীতেই। চোখের পানি বাঁধ মানে না বাসনা মল্লিকের। পাহাড় ধসে এই ঘরেই মৃত্যু হয়েছে তার ছেলে, ছেলের বউ আর নাতীর।

বছর পেরিয়ে গছে। ভাঙা ঘর ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু, পাহাড় ঠিক করবে কে? তাই এই বর্ষায় আবারও পাহাড় ধসের আশঙ্কা মাথায় নিয়ে বসবাস করছেন তারা। অন্যদের অবস্থাও বাসনা মল্লিকের মত। মৃত্যুভয় থাকলেও যেন করার কিছু নেই। গতবার রাঙামাটির যেসব জায়গায় পাহাড় ধসে মানুষের মৃত্যু হয়েছিল, ঠিক সেইসব জায়গায় আবারও বসতি গড়ে উঠেছে।

প্রতিশ্রুতি থাকলেও ক্ষতিগ্রস্তদের নিরাপদ স্থানে পুনর্বাসন করা হয়নি। শুধু সদরের ৩১টি এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ চিহ্নিত করে সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে। এসব এলাকায় বসবাস করছেন প্রায় আড়াই হাজার মানুষ। আর পুরো রাঙামাটি জেলায় ঝুঁকিতে থাকা মানুষের সংখ্যা ১৫ হাজার।

 

 

 

 

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save