চট্টগ্রামের পাহাড়ে কমছে না মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে বসবাস

প্রতি বছরই বর্ষা এলেই উচ্ছেদ চলে চট্টগ্রাম নগরীর ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়গুলোতে। তবে অভিযান শেষে আবারো অনেকেই সেখানে ফিরে যায়। ফলে বন্ধ হয় না পাহাড়ে মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে বসবাস। নগরবিদদের মতে, শুকনো মৌসুমেও চালাতে হবে এমন অভিযান। তবে তা করতে হবে নিরাপদ আবাসন নিশ্চিত করেই। অবশ্য জেলা প্রশাসকের দাবি, এবার আগে থেকেই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

 

টানা বর্ষণে পাহাড়ধস। আর তাতে প্রাণহানি। প্রতিবছরই এটা যেন অনেকটাই নিয়তি বন্দরনগরী চট্টগ্রামে।

পাহাড়ধসে মৃত্যু এড়াতে বৃষ্টির মৌসুম এলেই তোড়জোড় শুরু হয়। চালানো হয় উচ্ছেদ অভিযান। এবারও তেমনটি করছে প্রশাসন। তবে তাতে খুব একটা কাজ হয়না। কেননা, বৈরী আবহাওয়া আর আশ্রয়ের তেমন জায়গা না থাকায় পুনরায় ঝুঁকিপূর্ণ বসতিতেই ফিরে আসে মানুষ।

সরকারি হিসেবে চট্টগ্রাম নগরীতে ২৮টি পাহাড়ে মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে বাস করে অন্তত ৮শ ৬৮টি পরিবার। আর বেসরকারি হিসাবে যা ৩০ হাজারের বেশি। প্রশ্ন উঠেছে, শুকনো মৌসুমে কেন ঝুঁকি দূর করার উদ্যোগ নেয়না প্রশাসন?

তবে জেলা প্রশাসকের দাবী, এবার বর্ষার আগেই মাঠে নেমেছেন তারা। চেষ্টা করছেন, উচ্ছেদ হওয়া লোকজন যাতে পুনরায় ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসতি গড়তে না পারে।

পাহাড়ধসে গত ১১ বছরে চট্টগ্রামে মারা গেছে অন্তত আড়াইশো মানুষ। এরমধ্যে শুধু ২০০৭ সালের ১১ জুন একদিনেই মারা যায় ১২৮ জন।

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save