প্রতিদিন কর্ণফুলি নদীতে মিশছে দুইশ টন বর্জ্য

কর্ণফুলি নদী দূষণে সরাসরি জড়িত দুই শতাধিক শিল্প-কারখানা। প্রতিদিন ৫শ টন বর্জ্য মিশে যাচ্ছে নদীর পানিতে। ফলে ধীরে ধীরে বিষিয়ে উঠছে পানি। অস্তিত্ব সংকটে জীববৈচিত্র্য। এসব তথ্য উঠে এসেছে এক গবেষণা প্রতিবেদনে। তাই, শিল্প কারখানাগুলোতে বাধ্যতামূলক ইটিপি চালু রাখাসহ, সরকার কঠোর পদক্ষেপ না নিলে কর্ণফুলির অবস্থাও ঢাকার বুড়িগঙ্গার মতো হতে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

 

কর্ণফুলি নদী। যার দুই পাড়ে বসবাস করে প্রায় ৮০ লাখ মানুষ। তাই এই নদীকে বলা হয়ে থাকে চট্টগ্রামের প্রাণ।

তবে এই নদীর পানি যে ধীরে ধীরে বিষিয়ে উঠছে তার খবর রাখছেনা কেউই। গেল দুই বছর ধরে নদীর মোহনা থেকে কাপ্তাই পর্যন্ত বিভিন্ন ধাপে গবেষণা চালিয়ে ভয়াবহ চিত্র পেয়েছেন বিশেষজ্ঞদের একটি দল। যার একটি চিত্র উপস্থাপন করা হয়, সোমবার রাতে এক অনুষ্ঠানে।

গবেষনায় দেখা যায়, প্রতিদিন ট্যানারী, টেক্সটাইল মিল এবং তেল শোধনাগারসহ দুপাড়ে চালু থাকা ২শ'র বেশি কারখানার প্রায় ৫শ টন বর্জ্য সরাসরি পড়ছে কর্ণফুলীতে। যা আসছে ৩২টি খাল হয়ে। ফলে অনেকটা ব্যবহার অনুপোযোগী হয়ে পড়ছে এই নদীর পানি।

চিহ্নিত কারখানাগুলোর কোনটি ইটিপির অনুমোদন নিয়েও স্থাপন করেনি। আবার কোনটি স্থাপন করলেও সব সময় চালু রাখেনা। কোন মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা না থাকায় নদী দূষণ করেও এসব কারখানা পার পেয়ে যাচ্ছে বলেও মত বিশেষজ্ঞদের। 

দূষণ বাড়ায় কর্ণফুলির জীববৈচিত্র্য মারাত্মক হুমকির মুখে বলেও উল্লেখ করা হয় এই গবেষণাপত্রে। তাই এ ব্যাপারে সরকারকে এখণই কঠোর হওয়ার তাগিদ দেন বিশেষজ্ঞরা।

Last modified on 08-05-2018 02:45:02 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save