হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ: একবার চার্জে চলবে টানা ৩০ দিন

দিন-রাতের নির্দিষ্ট সময় জানতেই ঘড়ির আবিষ্কার। দীর্ঘদিন ধরে সময় জানার কাজেই ব্যবহার হয়ে আসছে এটি। গেলো কয়েক বছরে শুধু সময় জানানোর কাজে সীমাবদ্ধ নেই এর কার্যক্রম। প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে এতে। রূপান্তর হয়েছে স্মার্টওয়াচে। প্রযুক্তির বিকাশের ধারাবাহিকতায় এবার বাজারে আসছে হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ।

গেলো কয়েক বছরে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে স্মার্টওয়াচ। তবে ব্যাটারির স্থায়িত্ব নিয়ে রয়েছে অভিযোগ। এর চার্জ থাকে ২৪ ঘণ্টারও কম। এই সমস্যার সমাধান হতে যাচ্ছে, দাবি সুইজারল্যান্ডের ঘড়ি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান মিকরোনোজের। একই সাথে হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। একবার চার্জ দিয়ে টানা ৩০ দিন ব্যবহার করা যাবে এই স্মার্ট ডিভাইস।

মিকরোনোজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার ডেভিড ভ্যারিলা বলেন, 'শক্তিশালী ব্যাটারি সংযুক্ত করা হয়েছে হাইব্রিড স্মার্টওয়াচে। মূলত সাধারণ ঘড়ি এবং স্মার্টওয়াচের সংমিশ্রণ ঘটিয়েছি আমরা।'

হাইব্রিড স্মার্টওয়াচের সাহায্যে মোবাইল ফোন নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। কথা বলা, গান শোনাসহ দৈনন্দিন বেশকিছু কাজে ব্যবহার করা যাবে এই ঘড়ি। দৈনন্দিন কার্যকলাপ এবং ঘুমের মাত্রা পরিমাপের জন্য সেন্সর ডিভাইস ব্যবহার করা হয়েছে এতে। ব্যবহারকারীর হার্টবিটও ধরতে পারবে হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ।

মিকরোনোজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার ডেভিড ভ্যারিলা বলেন, 'হাইব্রিড স্মার্টওয়াচে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে। দৈনন্দিন কাজের তালিকাও করতে পারবেন এর ব্যবহারকারী। তথ্য সংগ্রহ এবং আবহাওয়ার পূর্বাভাসও পাওয়া যাবে।'

প্রথম ধাপে অরিজিনাল, প্রিমিয়াম ও এলিট মডেলের হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ বাজারজাত করবে মিকরোনোজ। এর প্রতিটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯৯ মার্কিন ডলার। প্রাথমিকভাবে ৬০টির বেশি দেশে বাজারজাতকরণের লক্ষ্যে হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ উৎপাদন করছে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর গেলো বছরে সবচেয়ে ভালো ব্যবসা করেছে মিকরোনোজ। জিটাইম স্মার্টওয়াচ বিক্রির মাধ্যমে ৬৫ লাখ ডলার আয় করে প্রতিষ্ঠানটি।

Last modified on 11-03-2018 01:04:38 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save