মুক্তবাজার অর্থনীতির প্রভাবে লম্বা হচ্ছে ব্যবসা গুঁটানোর তালিকা 

মুক্তবাজার অর্থনীতিতে প্রতিযোগিতায় টিঁকতে না পেরে এরই মধ্যে ব্যবসা গুঁটিয়েছেন ২৭৯টি কারখানার মালিক, যার সাথে নতুন যোগ হয়েছে আরো ছয়টি। 

এসব কারখানার সবধরণের দায়দেনা থেকে অব্যাহতি চেয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে পোশাক মালিকদের সংগঠন, বিজিএমইএ। বিশ্লেষকরা বলছেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে টিঁকে থাকতে হয় প্রতিযোগিতা করেই। ব্যক্তি উদ্যোগের ব্যবসায় লোকসানের দায় কোনোভাবেই সরকারের নয়। 

তলাবিহীন ঝুড়ির তকমা থেকে মধ্য আয়ের অভিযাত্রা দেশের অর্থনীতিকে সামনে টেনে নেওয়ার যে গল্প, তার সাথে ওতোপ্রতভাবে জড়িয়ে তৈরি পোশাক শিল্প। আশির দশকে শুরু হওয়া এ শিল্পের বিকাশের পথটা সহজ ছিল না মোটেও। যখন তখন রাজনৈতিক অস্থিরতা, শ্রমিক বিক্ষোভ কিংবা কারখানার দুর্ঘটনা সবমিলিয়ে ঝুঁকি ছিল সবসময়ই। সাথে সম্প্রতি ক্রেতা ধরে রাখতে যোগ হয়েছে কারখানা পুনর্গঠনের বাড়তি খরচ। যার সাথে পেরে উঠছেন না অনেকেই। তাই সময় যত যাচ্ছে, লম্বা হচ্ছে ব্যবসা গুঁটানোর তালিকাও।

পোশাক মালিকদের সংগঠন, বিজিএমইএর তালিকাভুক্ত তৈরি পোশাক কারখানা এখন সাড়ে চার হাজার। যার মধ্যে পুরোদমে কাজ করছে তিন হাজারের মতো, বাকিগুলো চলছে ঢিমেতালে। আর বিভিন্ন সময়ে একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছে ২৭৯টি কারখানা। যেই তালিকায় যোগ হচ্ছে নতুন আরো ছয়টি। সুদে আসলে যাদের ঋণের পরিমাণ ২৫৯ কোটি টাকা। সম্প্রতি সেই দায়দেনা থেকে অব্যাহতি চেয়ে মালিকদের পক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছে বিজিএমইএ। বিশ্লেষকরা বলছেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে প্রতিযোগিতা করেই টিকে থাকতে হয়। বন্ধ কারখানার দায় তাই কোনভাবেই সরকারের নয়। অ্যাকর্ড এলায়েন্স, ন্যাশনাল অ্যাকশন প্লানের আওতায় কারখানাগুলোকে সংস্কারের জন্য খরচ করতে হয়েছে ৫ থেকে ২০ কোটি টাকা পর্যন্ত।  

 

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save