টার্কি মুরগিতে ঠাকুরগাঁও খামারিদের নতুন স্বপ্ন

সারা দেশের মতো রংপুর অঞ্চলেও প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি দশ হাজার বেকারের কর্মসংস্থান হয়েছিল পোল্ট্রি শিল্পের মাধ্যমে। এসব খামারে কাজ পেয়েছিল ৫০ হাজার মানুষ। এই শিল্পের এখন বেহাল দশা। বার্ড ফ্লুর ঝাপটায় এসব মানুষের স্বপ্ন ভেঙ্গেছে। কিন্তু টার্কি মুরগী পালনের মাধ্যমে  আবারো সেই সম্ভাবনা ফিরে আসতে পারে বলে মনে করেন প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর। 

 

এক সময় নানান জাতের মুরগি ছিল এই খামারে। ডিম আর মুরগি উৎপাদনে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন এই খামারি। কিন্তু বার্ড ফ্লুর আক্রমণে সর্বস্ব হারিয়েছেন তিনি। শুধু তিনিই নন; ২০০৭ সালের পর ঠাকুরগাঁওয়ের ৮০ শতাংশ খামারিকে পথে বসিয়েছে ওই রোগ।

একের পর এক পোল্ট্রি খামারে যখন ধস নামছে তখন খামারিদের নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছে টার্কি মুরগি। সাধারণ মাংসের তুলনায় টার্কির মাংসে প্রোটিনের হার বেশি। এছাড়া এই জাতের মুরগির প্রধান খাদ্য লতা-পাতা আর ঘাস। তাই পালন খরচও কম। এতে প্রান্তিক অঞ্চলে জনপ্রিয় হচ্ছে টার্কির খামার। দেশের উত্তরের জেলাগুলোতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি আকারে গড়ে উঠছে এই মুরগির খামার। শুধু ঠাঁকুরগাঁওয়ে হয়েছে ২শ টার্কি খামার; হয়েছে কর্মসংস্থানও।

টার্কি মুরগির খামার গড়ে তুলতে সব ধরনের সহযোগিতা পাচ্ছেন ক্ষুদ্র খামারিরা। অন্যদিকে টার্কির উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব হলে আমিষের চাহিদা পূরণ হবে; চাপ কমবে সাধারণ মুরগির ওপর। 

Last modified on 14-11-2017 05:35:12 PM

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save